চায়ের দোকানের আড়ালে সামাদ মিয়া’র জমজমাট মাদক ব্যবসা!

AUTHOR: durnitirsondhane
POSTED: রবিবার ২২ নভেম্বর ২০২০at ১০:৩২ অপরাহ্ণ
FILED AS: ভিডিও
188 Views

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ
চুনারুঘাট সিমান্তবর্তী এলাকায় সাদ্দাম বাজারে চায়ের দোকানের আড়ালে দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ মাদক ব্যবসা ও মাদক পাচার করে আসছেন সামাদ নামের এই ব্যক্তি।
গোপন সূত্রে জানা যায় দুলাল মিয়ার ছেলে, সামাদ মিয়া সাদ্দাম বাজারে নামে মাত্র চায়ের দোকান দিয়ে সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন মাদকের জমজমাট ব্যবসা। সামাদের ভাই রহিমকে দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় মাদক বহন করিয়েছেন এই সামাদ। বেশ কিছু দিন আগে সামাদ তার ভাই রহিমকে দিয়ে ৫ কেজি গাজা পাঠান ঢাকায়। এসময় গোপন সুত্রে খবর পেয়ে পুলিশ সামাদের ভাই রহিমকে ভৈরবে গাজাঁ সহ আটক করে, এবং জেল হাজতে প্রেরন করেন।

রহিম জেল হাজতে থাকায় সামাদের মাদক ব্যবসা কিছুটা নিস্ক্রিয় হলেও কিছু দিন পর কৌশলে সাদ্দাম বাজারের গরীব ও অসহায় মহিলাদের টাকার লোভ দেখিয়ে মাদক বহনে বাধ্য করেন। বেশ কিছু মাদকের চালান দেয়ার পর বেশ কিছুদিন আগে ১০ কেজি গাজা সহ এক মহিলা আটক হন গুইবিল বিজিবি’র হাতে। আর তখনই বেরিয়ে আসে সামাদের নাম। মাদক ব্যবসায়ীর ডন হিসাবে এলাকায় বিরাজমান।

এলাকাবাসী বলেন মুখুশ পড়া মাদকের গডফাদার সামাদ। কিছুদিন আগেও মানুষের বাড়ি বাড়ি কাজ করেছেন তার ভাই রহিম, রিস্কা চালিয়ে সংসার চালিয়েছেন হঠাৎ করে সিমান্তবর্তী এলাকায় ছোট একটা চায়ের দোকান দিয়ে কি এমন আলাদিনের চেরাগ পেয়ে গেল যে ১৫ লাখ টাকা খরচ করে বাড়ি বানিয়েছে দামী মোটর সাইকেল কিনেছে তার তো চা বিক্রি ছাড়া আর কোনো উপার্জন নেই।

মাদকের গডফাদার সামাদের উপর বিজিবি মাদক মামলার অভিযোগ দায়ের করলে ঘা ডাকা দেন সামাদ।
তরুন প্রজন্ম ও যুব সমাজকে মাদকের ভয়াবহ ছোবল থেকে বাচাঁতে মাদক সম্রাট সামাদ’কে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসী।


[bwitSDisqusCom]